মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০২৪

  ঢাকা, বাংলাদেশ  |  আজকের পত্রিকা  |  ই-পেপার  |  আর্কাইভ   |  কনভার্টার  |   অ্যাপস  |  বেটা ভার্সন

মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০২৪

  |  ঢাকা, বাংলাদেশ  |  আজকের পত্রিকা  |  ই-পেপার  |  আর্কাইভ   |   কনভার্টার  |   অ্যাপস  |  বেটা ভার্সন

spot_img

রাজশাহী বোর্ডে এসএসসিতে প্রথম স্থান অর্জন

মেধাবি সিয়ামের পড়ালেখার দায়িত্ব নিলেন মানবিক এমপি জয়

জনদর্পণ প্রতিবেদন

বার্তা সরণি প্রতিবেদন

| অনলাইন সংস্করণ

মানবতায় এগিয়ে আসলেন সিরাজগঞ্জ ১ আসনের সংসদ সদস্য ও উত্তরবঙ্গের কৃতি সন্তান প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়। এসএসসি পরীক্ষায় বাণিজ্য বিভাগ থেকে রাজশাহী বোর্ডে প্রথম স্থান অর্জন করেও অর্থের অভাবে কলেজে ভর্তি হতে পারছিলেন না সিয়াম। কাজিপুর সরকারি মনসুর আলী কলেজ ছাত্র সংসদ এর সাবেক এজিএস আব্দুর রউফ সরকার পরানের কাছ থেকে এমন খবর জানতে পেরে নিজ নির্বাচনী এলাকায় সিয়ামকে দেখা করতে বলেন মানবিক এমপি তানভীর শাকিল জয়। ১০ই জানুয়ারী (মঙ্গলবার) দুপুরে কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে মেধাবী সিয়াম প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় এমপির সাথে সাক্ষাৎ করেন।এসময় এমপি জয় ও কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সিয়ামকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। সিয়ামের পড়ালেখার দায়িত্ব নেন এমপি জয়।

অদম্য মেধাবী সিয়াম বয়রা ভেন্নাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০২০-২০২ শিক্ষাবর্ষে বাণিজ্য বিভাগ থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হয়। সিয়াম সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার রতনকান্দি ইউনিয়নের বিনয়পুর (পশ্চিম পাড়া) গ্রামের মোঃ দুলাল আকন্দ এর ছেলে। কৃষক বাবার সামান্য আয়ে পাঁচ সদস্যের সংসার চলে। সিয়ামরা ৩ ভাই সহ তাদের মা বাবার বসবাস নিজস্ব সামান্য জায়গার উপর নির্মিত খুপড়ী ঘরে।

কলেজে ভর্তির জন্য প্রয়োজনীয় অর্থের যোগান দিতে না পেরে সিয়াম ও তাঁর পরিবার হতাশায় পড়ে যায়,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জুড়ে সিয়ামকে নিয়ে শুরু হয় লেখালেখি। সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সিয়ামকে কিছু সহযোগিতা করা হলেও স্থায়ী কোন সমাধান আসে না। এরইমধ্যে সিয়ামকে নিয়ে করা একটি প্রতিবেদন চোখে পড়ে সাবেক ছাত্রনেতা আব্দুর রউফ সরকার পরানের। তিনি সিয়ামের নিউজটি এমপি জয়কে হোয়াটসঅ্যাপে পাঠালে তাৎক্ষণিক সাড়া দেন এমপি জয়।

এ বিষয়ে আব্দুর রউফ সরকার পরান বলেন, ‘সিয়ামের নিউজ আমার অগোচরে আসলে আমি প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় সাহেবকে পাঠাই,তিনি আমাকে মধ্যরাতেই ফোন করে সিয়ামকে কাজিপুর দেখা করানোর বিষয়ে জানান। একজন সংসদ সদস্যের কাছ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোন হতদরিদ্র শিক্ষার্থীর জন্য স্থায়ী সহযোগিতা সত্যিই প্রশংসনীয়।

সিয়াম বলেন, ‌আমি আমাদের এমপি সাহেবের সাথে দেখা করেছি,তিনি আমার পড়ালেখার সমস্ত দায়িত্ব নিয়েছেন। একজন জাতীয় নেতার সন্তানের এমন মহানুভবতায় আমি ও আমার পরিবার চির কৃতজ্ঞ। এদিকে এমপি জয়ের এমন মানবিক মহানুভবতার দৃষ্টান্তে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জুড়ে প্রশংসার ঝড় বইছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

শীত বস্ত্র বিতরণ করলো মোহাম্মদ নাসিম ফাউন্ডেশন

বার্তা সরণি প্রতিবেদক:প্রয়োজনীয় শীতবস্ত্র না থাকায় খড়কুটো জ্বালিয়ে আগুনের সাহায্যে শীত নিবারণ করছে পাবনার...

বঙ্গবন্ধুকে ফিরে না পেলে স্বাধীনতা পূর্ণতা পেতো না : মেয়র তাপস

বার্তা সরণি প্রতিবেদক:ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন,...

১৪ বাড়ির তথ্য মিথ্যা, শুধু একটি আমার স্ত্রীর : ওয়াসা এমডি

বার্তা সরণি প্রতিবেদক:ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী তাকসিম এ খান বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে ১৪টি...

মানবতায় এগিয়ে আসলেন সিরাজগঞ্জ ১ আসনের সংসদ সদস্য ও উত্তরবঙ্গের কৃতি সন্তান প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়। এসএসসি পরীক্ষায় বাণিজ্য বিভাগ থেকে রাজশাহী বোর্ডে প্রথম স্থান অর্জন করেও অর্থের অভাবে কলেজে ভর্তি হতে পারছিলেন না সিয়াম। কাজিপুর সরকারি মনসুর আলী কলেজ ছাত্র সংসদ এর সাবেক এজিএস আব্দুর রউফ সরকার পরানের কাছ থেকে এমন খবর জানতে পেরে নিজ নির্বাচনী এলাকায় সিয়ামকে দেখা করতে বলেন মানবিক এমপি তানভীর শাকিল জয়। ১০ই জানুয়ারী (মঙ্গলবার) দুপুরে কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে মেধাবী সিয়াম প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় এমপির সাথে সাক্ষাৎ করেন।এসময় এমপি জয় ও কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সিয়ামকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। সিয়ামের পড়ালেখার দায়িত্ব নেন এমপি জয়।

অদম্য মেধাবী সিয়াম বয়রা ভেন্নাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০২০-২০২ শিক্ষাবর্ষে বাণিজ্য বিভাগ থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হয়। সিয়াম সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার রতনকান্দি ইউনিয়নের বিনয়পুর (পশ্চিম পাড়া) গ্রামের মোঃ দুলাল আকন্দ এর ছেলে। কৃষক বাবার সামান্য আয়ে পাঁচ সদস্যের সংসার চলে। সিয়ামরা ৩ ভাই সহ তাদের মা বাবার বসবাস নিজস্ব সামান্য জায়গার উপর নির্মিত খুপড়ী ঘরে।

কলেজে ভর্তির জন্য প্রয়োজনীয় অর্থের যোগান দিতে না পেরে সিয়াম ও তাঁর পরিবার হতাশায় পড়ে যায়,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জুড়ে সিয়ামকে নিয়ে শুরু হয় লেখালেখি। সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সিয়ামকে কিছু সহযোগিতা করা হলেও স্থায়ী কোন সমাধান আসে না। এরইমধ্যে সিয়ামকে নিয়ে করা একটি প্রতিবেদন চোখে পড়ে সাবেক ছাত্রনেতা আব্দুর রউফ সরকার পরানের। তিনি সিয়ামের নিউজটি এমপি জয়কে হোয়াটসঅ্যাপে পাঠালে তাৎক্ষণিক সাড়া দেন এমপি জয়।

এ বিষয়ে আব্দুর রউফ সরকার পরান বলেন, ‘সিয়ামের নিউজ আমার অগোচরে আসলে আমি প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয় সাহেবকে পাঠাই,তিনি আমাকে মধ্যরাতেই ফোন করে সিয়ামকে কাজিপুর দেখা করানোর বিষয়ে জানান। একজন সংসদ সদস্যের কাছ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোন হতদরিদ্র শিক্ষার্থীর জন্য স্থায়ী সহযোগিতা সত্যিই প্রশংসনীয়।

সিয়াম বলেন, ‌আমি আমাদের এমপি সাহেবের সাথে দেখা করেছি,তিনি আমার পড়ালেখার সমস্ত দায়িত্ব নিয়েছেন। একজন জাতীয় নেতার সন্তানের এমন মহানুভবতায় আমি ও আমার পরিবার চির কৃতজ্ঞ। এদিকে এমপি জয়ের এমন মানবিক মহানুভবতার দৃষ্টান্তে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জুড়ে প্রশংসার ঝড় বইছে।